স্ত্রীর অধিকার আদায়ে দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন মধ্যেবয়সী এক নারী

প্রতিবেদকের নাম :
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১১ নভেম্বর, ২০২০
  • ২৫ বার নিউজটি পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে স্ত্রীর অধিকার আদায়ের জন্য দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন মধ্যেবয়সী এক নারী। শিলাইদহ ইউনিয়নের কল্যাণপুর গ্রামের লিয়াকত আলীর ছেলে আবু মুসা বিয়ে করে স্ত্রীর অধিকার না দেয়ায় মঙ্গলবার দুপুরে তাদের বাড়িতে অবস্থান করেন ঐ নারী। মুসার পরিবার তাকে বাড়িতে উঠতে না দিয়ে তাড়িয়ে দিয়েছেন বলে জানা যায়।

 

 

 

ভুক্তভোগী ঐ নারী জানান, প্রায় ২ বছর পূর্বে আবু মুসা পাংশা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে তাদের বাড়ির পাশে ম্যাচে থেকে পড়াশোনা করতো। সেসময় হটাৎ একদিন তার ঘরে ঢুকে মুসা তাকে জোরপূর্বক ধর্ষন করে। বিষয়টি ঐ নারী তার স্বামীকে জানানোর কথা বললে মুসা তাকে বিয়ে করার আশ্বাস দেয়। এবং তার পূর্বের স্বামীকে তালাক দেবার কথা বলে। তারপর থেকে মুসার সাথে তার ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে ওঠে। একপর্যায়ে মহিলা তার স্বামীকে তালাক দেয় এবং চলতি বছরের ১৮ আগষ্ট রাজবাড়ি কোর্টে বিয়ে হয়। এরই মধ্যে মহিলা তার জমানো প্রায় দুই লাখ টাকা মুসাকে দিয়েছেন বলে দাবি করেন। মুসা তাকে বাড়িতে না এনে টালবাহানা করায় তার সন্দেহ হয় এবং কল্যাণপুর তাদের বাড়িতে এসে জানতে পারেন মুসা ১৫/২০ দিন পূর্বে আরকটি বিয়ে করে শশুড় বাড়িতে অবস্থান করছে। এসময় সে স্ত্রীর অধিকার নিয়ে মুসার বাড়িতে থাকতে চাইলে মুসার পরিবারের লোকজন তাকে তাড়িয়ে দেয়।

 

 

 

মুসার মা বলেন তার ছেলের বয়স খুবই কম তার মা বয়সী মহিলার সাথে বিয়ে হতে পারেনা। তাদের অভিবাবক বাড়িতে নেই আসলে ব্যবস্থা নিবেন বলে জানান। মুসার সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে বন্ধ দেখায়।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর ....
x