হরিপুরে অভিনব কৌশলে চলছে মাদকের রমরমা ব্যবসা। যুব সমাজ অন্ধকারে যাচ্ছে হারিয়ে!

প্রতিবেদকের নাম :
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১৫ জানুয়ারী, ২০২০
  • ২১৬ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
অভিনব কৌশলে চলছে মাদকের রমরমা

কুষ্টিয়া প্রতিবেদনঃ কুষ্টিয়া সদর উপজেলার হাটশ হরিপুর ইউনিয়নে কোন ভাবেই দমানো যাচ্ছে না মাদকের রমরমা ব্যবসা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও প্রশাসন মাদকের বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষণা করলেও হরিপুরের মাদক ব্যবসায়ীরা বিভিন্ন অভিনব কৌশলে মাদকের রমরমা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। এখন প্রকাশ্যে মাদক ব্যবসা না হলেও গোপনীয় ভাবে আগের চেয়ে দ্বিগুণ মাদক ব্যবসা চলছে। আর মাদক বিক্রির বিভিন্ন সিন্ডিকেট আকারে মাদক ব্যবসা চালাচ্ছে দীর্ঘদিন ধরে। এই সমস্ত মাদক সিন্ডিকেট পরিচালিত হচ্ছে স্কুল, কলেজ পড়ুয়া তরুণ সমাজদের টার্গেট করে। মাদক বিক্রি, পরিবহন, সরবরাহ সবকিছুই এখন তরুণদের উৎসাহের মাধ্যমে দামী গাড়ি, লোভনীয় অফার, প্রতি পিছ ইয়াবার কমিশন ইত্যাদি পন্থায় দেদারচ্ছে চালাচ্ছে মাদক ব্যবসা। হাত বাড়ালেই বাজারের নিত্যপণ্যে আলু পটলের মতোই গাজা, ইয়াবা, হিরোইন, ফেন্সীডেল, টাপেন্ডা পাওয়া যায়।

কয়েকজন তরুণের সাথে কথা বললে তারা জানান, এখন সবচেয়ে তরুণদের মাঝে ইয়াবার চাহিদাই সবচেয়ে বেশি। হরিপুরে দীর্ঘদিন ধরে কিছু স্মার্ট তরুণ তাদের ভদ্রতার আড়ালে যুব সমাজের মাঝে রমরমা মাদক ব্যবসার সিন্ডিকেট গড়ে তুলেছে। এই সমস্ত তরুণ বেকার হলেও দামী গাড়ি, রাজকীয় কায়দায় দাপিয়ে বেড়ালেও প্রতিনিয়ত মাদক ব্যবসার নেটওয়ার্কের আধিপত্য বিস্তার ঘটায়। আর এই মাদক সিন্ডিকেটের পিছনে রয়েছে কিছু স্বার্থ হাসিল করা বড় ভাই নামে খ্যাত কিছু মানুষ। বর্তমানে ইয়াবা আসক্ত তরুণদের সংখ্যাই সবচেয়ে বেশি। ইয়াবা কিনতে কোথাও যাওয়া লাগে না। ফোনে যোগাযোগ করা হলেই বাজারের প্রচলিত পণ্যের মতোই তাৎক্ষণিক সরবারহ করা হয় মাদক। দাম একটু বেশি হলেও সহজেই হাত বাড়ালেই পাওয়া যায়। সরেজমিন পরিদর্শন করলে দেখা যায়, গড়াই নদীর চর, নদীতে বেঁধে রাখা নৌকার ছাউনির নিচে, পদ্মা নদীর চর, শালদাহ মাঠে, জোড়া বটগাছ তলার আশেপাশে, বাজারের সামনে ব্যাংকের মাঠ নামে পরিচিত জায়গা, কাবিলের মোড়, ফারাজী পাড়া সাগর খালি মাঠ, মিল্লা পাড়ার কয়েকটি চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীর বাড়ি, নদীর কূল মাঠপাড়া, কান্তিনগর সহ বিভিন্ন স্পটে সন্ধ্যা থেকেই মাদক সেবন ও বিক্রির মহা উৎসব চলে। বেশ কয়েকবার এই মাদক ব্যবসায়ী গুলো প্রশাসনের হাতে বিভিন্ন সময়ে মাদক সহ হাতেনাতে ধরা পড়লেও কিছুদিন পড়ই আইনের ফাঁকফোকর থেকে বেরিয়ে এসে আগের চেয়ে দ্বিগুণ মাদক ব্যবসা চালায়। মাদকের কুপ্রভাবে এলাকায় চুরি ছিনতাই সহ নানা অপকর্ম সংঘটিত হওয়ায় এলাকার সুশীল সমাজ ও সাধারণ মানুষদের মাঝে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে।

তাই হরিপুরের সকল শ্রেণীর পেশার মানুষদের দাবী কোন তালবাহানা নয় যতো দ্রুত সম্ভব মাদক ব্যবসায়ীদের লাগাম টেনে ধরে তরুণ সমাজদের অন্ধকারে থেকে আলোর পথে ফিরিয়ে আনা হোক।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর ....
x