খলিসাকুন্ডিতে স্বামীর ঘর ছেড়ে পরকীয়া প্রেমিকের হাত ধরে স্ত্রী উধাও

প্রতিবেদকের নাম :
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৩ মে, ২০২০
  • ৩৪২৯ বার নিউজটি পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিনিধি : দেড় বছর সংসার করার পর অবশেষে স্বামীর ঘর থেকে পরকীয়া প্রেমিকের হাত ধরে পালিয়েছে সাবরিনা আফরিন আখিঁ নামের এক গৃহবধু । ঘটনা ঘটেসে কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার খলিসাকুন্ডি গ্রামে । করোনা এই মুহুর্তে এ ঘটনায় এলাকায় চা’ঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। এ ব্যাপারে দৌলতপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছে ঐ গৃহবধুর শ্বশুর।




জানা গেছে, গত দেড় বছর পুর্বে জেলার দৌলতপুর উপজেলার খলিসাকুন্ডি গ্রামের পাইক পাড়ার ইজহার আলীর ছেলে ইফতেক্ষার মাহমুদ রনির সাথে পাশ্ববর্তী আড়িয়া ইউনিয়নের তালবাড়িয়া গ্রামের আব্দুল হালিমের মেয়ে সাবরিনা আফরিন আখিঁর সাথে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়।  বিয়ের পর তাদের সংসার ভালই চলছিল এর মধ্যে  সাবরিনা আফরিন আখিঁ কম্পিউটার শেখার জন্য জেলার মিরপুরের বনলতা কম্পিউটার নামের একটি কম্পিউটার প্রশিক্ষন কেন্দ্র ভর্তি  হয় । সেখানে নিয়মিত যাতায়াতের সুত্র ধরে মিরপুর সেক্টর পাড়ার পুলিশ সদস্য শামিম হোসেনের ছেলে প্রিন্স এর সাথে পরিচয় হয় । সেখানে প্রিন্স নিজেকে ডিবি পুলিশের পরিচয় দিয়ে তার সাথে সম্পর্ক করার চেষ্টা করে । এক পর্যায়ে সাবরিনা আফরিন আখিঁ  প্রিন্স এর সাথে পরকীয়া সম্পর্কে  জড়িয়ে পড়েন । এমন ঘটনায় রনি ও সাবরিনা আফরিন আখিঁ মধ্যে কলহ সৃষ্টি হতে থাকে।




এরই সুত্র ধরে গত ২০শে এপ্রিল সাবরিনা আফরিন আখিঁ বাবার বাড়ির কথা বলে তার প্রয়োজনীয় জিনিস নিয়ে  চলে আসে পরে জানা যায়  পরকীয়া প্রেমিকের হাত ধরে পালিয়েছে সাবরিনা আফরিন আখিঁ।   

আরো দেখুন পরকীয়া প্রেমিকের হাত ধরে স্ত্রী উধাও

ইফতেক্ষার মাহমুদ রনি জানায়, গত ২০শে এপ্রিল সাবরিনা আফরিন আখিঁ বাবার বাড়ির কথা বলে তার প্রয়োজনীয় জিনিস নিয়ে  চলে আসে। পরে জানতে পারি  মিরপুর সেক্টর পাড়ার পুলিশ সদস্য শামিম হোসেনের ছেলে ‘মাদকাসক্ত’ পরকীয়া প্রেমিক প্রিন্স এর সঙ্গে পালিয়ে যায় । তিনি আরও জানান, তার স্ত্রী সাবরিনা আফরিন আখিঁ পালিয়ে যাওয়ার সময় তার কষ্টার্জিত নগদ অর্থ ও স্বর্ণালংকার সাথে করে নিয়ে গেছেন।

এ ঘটনায় ইফতেক্ষার মাহমুদ রনির পিতা ইজহার আলী দৌলতপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে ।

আরো দেখুন পরকীয়া প্রেমিকের হাত ধরে স্ত্রী উধাও

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর ....
x