দৌলতপুরে সাংবাদিক সেলিম রেজার ওপর সন্ত্রাসী হামলা থানায় অভিযোগ দায়ের

Khandaker Jalal Uddin. Email: uddinjalal030@gmail.com
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২০ আগস্ট, ২০২০
  • ৭২ বার নিউজটি পড়া হয়েছে

দৌলতপুর প্রতিনিধি : কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার আল্লারদর্গায় পাওনা টাকা চাওয়া কে কেন্দ্র করে সন্ত্রাসী হামলায় গুরুতর আহত হয়েছেন দৈনিক আজকের সূত্রপাত এর স্টাফ রিপোর্টার, ডেইলি বাংলাদেশের কন্ঠ২৪.কমের প্রকাশক ও সম্পাদক এবং আল্লারদর্গা প্রেস ক্লাবের প্রচার সম্পাদক মোঃ সেলিম রেজা, তাকে উদ্ধার করতে গিয়ে গুরুতর আহত হয়েছে জাতীয় শ্রমিক লীগ দৌলতপুর উপজেলা শাখার আহ্বায়ক এম,এ মান্নান সরদার ও ছোট ভাই শেরশাহ্ আহমেদ।

গতকাল বুধবার সকালে আল্লারদর্গায় সাংবাদিক সেলিম রেজার বসত বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে আল্লারদর্গা প্রেস ক্লাবের নেতৃবৃন্দ ও সাংবাদিকরা ঘটনাস্থলে ছুটে যান এবং এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানান।

জান গেছে সাইফুল ইসলাম এর ভাটার ইট কেনার জন্য সাংবাদিক সেলিম রেজা ও চাচা মান্নান সরদার সাইফুল ইসলামকে তাদের স্বাক্ষরিত একটি ভাউচারে ১ লক্ষ টাকা শর্তসাপেক্ষে দেয়। সাইফুল ৪০ হাজার ইট দেবে বলে ৬ হাজার পিকেট ইট পাঠায়, পরে ইটও দেয় না টাকাও দেয় না।

গতকাল সাইফুল ইসলাম কে মুঠোফোনে কল দিয়ে টাকা চাইলে, সে বল তুই বাড়িতে থাক আমি আসছি পরে সন্ত্রাসী বাবলু ও সাইফুল ইসলাম সহ ১০/১২ জন মটর সাইকেল যোগে এসে সাংবাদিক সেলিম রেজার বাড়ির গেটে লাথি মারতে থাকে এবং অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে গেট খুলতে বলে।

গ্রেট না খোলায় এক পর্যায়ে বাবলু ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী গেটের তালা ভেঙে সাংবাদিক সেলিম রেজা ও চাচা মান্নান সরদার, ছোট ভাই শেরশাহ্ ওপর অতর্কিত হামলা চালায়।

এতে গুরুতর জখম হন সাংবাদিক সেলিমের সহ তিন জন। সাংবাদিক সেলিমের চিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে এলে সন্ত্রাসী বাবলু সাইফুলসহ তার সহযোগীরা একটি মোটরসাইকেল ফেলে রেখে পালিয়ে যান, পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় সাংবাদিক সেলিম সহ তিনজনকে দৌলতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নেয়া হয় ।

খবর পেয়ে দৌলতপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে যাওয়ার আগেই সন্ত্রাসী বাবলু সাইফুলসহ সকলের পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থল থেকে একটি মোটরসাইকেল আটক করে থানায় নিয়ে যায়, এ ব্যাপারে দৌলতপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

এ ঘটনায় প্রেস ক্লাবের নেবৃন্দের মধ্যে ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সাংবাদিক সেলিম রেজা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাসায় চলে আসে, জাতীয় শ্রমিক লীগের আহ্বায়ক এম,এ মান্নান সরদার ও শেরশাহ্ আহমেদ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর ....
x