কুষ্টিয়ায় বিষাক্ত অ্যালকোহল পান করেই দিনের খবর সম্পাদক জিল্লুর মৃত্যু

কুষ্টিয়া প্রতিবেদক:
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৮৪ বার নিউজটি পড়া হয়েছে

বিষাক্ত অ্যালকোহল পান করেই দৈনিক দিনের খবর সম্পাদক ফেরদৌস রিয়াজ জিল্লু অসুস্থ হন । ঢাকায় নেয়ার পথে বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে তিনি মারা যান ।

 

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের রেজিস্টারে তার অসুস্থতার কারণ বিষাক্ত অ্যালকোহল বলে লিপিবদ্ধ করা আছে । আজ শুক্রবার বাদ জুম্মা তার জানাজা শেষে তার কুষ্টিয়া পৌর গোরস্থানে দাফন কাজ সম্পন্ন করা হয় ।

 

 

বিষাক্ত অ্যালকোহল পান করে মারা যাওয়া বিষয়টি সব জায়গায় জানাজানি হলেও ময়নাতদন্ত ছাড়ায় তাকে দাফন করা হয়েছে । তার সাথে বসে যারা মদ্যপান করেছে তাদেরকে জিল্লু হত্যার দায় থেকে এড়ানোর জন্যই তড়িঘড়ি করে দাফন করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছে সুশীল সমাজ ।

 

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের রেজিস্টারে তার অসুস্থতার কারণ বিষাক্ত অ্যালকোহল বলে লিপিবদ্ধ

 

এদিকে জিল্লুর সহকর্মীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন , “জিল্লু যাদের সাথে ব্যাবসায়ী পার্টনার তারাই মদের সাথে বিষ মিশিয়ে জিল্লুকে হত্যা করেছে ।”

 

হাসপাতালে থাকা প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, জিল্লু অসুস্থ্য অবস্থায় ডাক্তারকে জানিয়েছেন তিনি সহ চারজন মদ্যপান করেছিলেন। জিল্লু অসুস্থ্য হয়ে যাওয়ার পর যে দুইজন তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেছে তারা তার মদের আসরে ছিলেন। জিল্লুর মৃত্যু হলেও তাদের মদ্যপান করে কিছুই হয়নি।

 

 

এ দুজনেই জিল্লুর ব্যবসায়ীক পার্টনার বলে একাধিক লোক নিশ্চিত করেছে । এব্যাপারে একাধিক ডাক্তারের সঙ্গে কথা বললে তারা জানান, যদি চারজন মিলে বিষাক্ত মদপান করে থাকেন তাহলে তারা সকলে অসুস্থ্য হবেন। সবাই মারা নাও যেতে পারেন তবে অসুস্থ্য না হওয়ার কোন কারণ নেই। এখানে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অকার্যকর।

 

 

সংবাদিক নেতৃবৃন্দের বক্তব্য তার সাথে থাকা সহকর্মীরা তাকে হত্যা করেছে। সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ তদন্ত সাপেক্ষে দোষী ব্যক্তিদের শাস্তির আওতায় আনার জন্য জোর দাবী জানিয়েছেন।

 

এ ব্যাপারে কুষ্টিয়া মডেল থানার ওসি মোঃ গোলাম মোস্তফার সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, পরিবারের পক্ষে থেকে কোন অভিযোগ না করায় কোন আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হয়নি ।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর ....
x