দৌলতপুরে ঋণের টাকা চাইতে গিয়ে গ্রামীণ ব্যাংকের কর্মী খুন

Khandaker Jalal Uddin. Email: uddinjalal030@gmail.com
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১ অক্টোবর, ২০২০
  • ৫২ বার নিউজটি পড়া হয়েছে

 

দৌলতপুর প্রতিনিধি ঃ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার ফিলিপ নগর ইউনিয়নের মন্ডল পাড়া গ্রামে গ্রামীণ ব্যাংকের ঋণের টাকা আদায় করতে গিয়ে গ্রহক মন্ডল পাড়া গ্রামের পচু দফাদারের ছেলে মোমিন (৩২) খুন করে গ্রামীণ ব্যাংক মথুরাপুর-হোসেনাবাদ শাখার মাঠ কর্মী নূরুজ্জামান (৩০) কে।

নূরুজ্জামান অরূফে নান্টু উপজেলার খলিশাকুন্ডি ইউনিয়নের মৌবাড়ীয়া রোজী কামালপুর গ্রামের মতলেব কাজীর ছেলে। গ্রামীণ ব্যাংক হোসেনাবাদ মথুরাপুর শাখার ফিল্ড অফিসার মতলেব কাজীর ছেলে নুরুজ্জামানের লাশ টয়লেট থেকে উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ।

এ বিষয়ে হোসেনাবাদ মথুরাপুর গ্রামীন ব্যাংক শাখা ম্যানেজার সালাউদ্দিন জানান, প্রতিদিনর ন্যায় আজ নুরুজ্জামান ফিলিপনগর এলাকায় ১২, ২ ও ৩ নং মৌ কেন্দ্রে টাকা আদায়ের লক্ষ্যে সকাল অনুমানিক ৭:৩০ মিনিটে অফিস থেকে বের হয়।

যথারীতি অফিসে ফেরার সময় ২ টা হলেও তিনি অফিসে না ফেরায়, আমরা মনে করি বৃষ্টির কারনে হয়তো দেরি হচ্ছে। কিন্তু বিকাল ৪ টা পার হলেও নুরুজ্জামান অফিসে না ফেরায় তার ফিল্ড এলাকায় অফিস স্টাফ সহ আমি খোঁজাখুঁজি শুরু করি, শেষ কেন্দ্র হারুন মেকারের বাসায় গেলে তারা জানায় অনেক আগে চলে গেছে।

তখন আমি অনুমান করি দীর্ঘ দিন ঢাকায় থাকা ফিলিপনগর মন্ডলপাড়া গ্রামের মোমিনের স্ত্রী হীরা বাসায় এসেছে, তাদের বাড়িতে হয়তো যেতে পারে। ঠিক,মোনিনের বাড়ির ঢোকার রাস্তায় আসলে কিছু ব্যক্তি আমাকে নিশ্চিত করেন নুরুজ্জামান এই দিকে এসেছে। অনেক খোঁজা খুঁজির পরে আমরা মটর সাইকেলের চাকার দাগ দেখে নিশ্চিত হলাম এই বাড়ীতে আছে।
বাড়ীর লোক পালিয়ে গেলে আমরা অন্য এক রুমের উপর দিয়ে উঠে মটর সাইকেল দেখে নিশ্চিত হলাম এখানে আছে। পরে আমরা পুলিশে খবর দেয়, পুলিশ এসে টয়লেট থেকে তার লাশ উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে থানা পুলিশ জানায় লাশ উদ্ধার করা হয়েছে এবং ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে, তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর ....
x