ভেড়ামারায় নারী কেলেঙ্কারির অভিযোগে ধরমপুর বাজার জামে মসজিদের ইমামকে বহিস্কার!

Khandaker Jalal Uddin. Email: uddinjalal030@gmail.com
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১১ অক্টোবর, ২০২০
  • ৪৫ বার নিউজটি পড়া হয়েছে

 

ভেড়ামারা প্রতিনিধি ॥ নারী কেলেঙ্কারি ও আপত্তিকর ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্ততার অভিযোগে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় ধরমপুর বাজার জামে মসজিদের ইমাম ও ধরমপুর শিশু একাডেমির প্রধান শিক্ষক মোঃ মাহফুজুর রহমান বুলবুল (৩৫)’কে বহিস্কার করেছে মসজিদ কমিটি।

মাহফুজুর রহমান বুলবুল ধরমপুর ইউনিয়নের উত্তর ভবানীপুর মাঠপাড়া এলাকার জামাতের সাবেক আমীর মোজাম্মেল হকের পূত্র। মসজিদ কমিটি জানায়, ধরমপুর শিশু একাডেমির এক শিক্ষিকার (কুয়েত প্রবাসীর স্ত্রী) সাথে বুলবুলের পরকীয়া সম্পর্কের কথা জানাজানি, তাদের অবৈধ মেলামেশা ও ইমুতে তাদের অশ্লীল কথাবার্তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে গত ০১/১০/২০ইং তারিখে ভাইরাল হলে বিষয়টি জানতে পেরে কমিটি সকল সদস্যদের সর্বসম্মতি ক্রমে গত ০৩/১০/২০ইং তারিখে তাকে বহিস্কার করা হয়েছে।

এঘটনার পর থেকে ধরমপুর বাজার জামে মসজিদের (অস্থায়ীভাবে) ইমাম হিসেবে মওলানা মোঃ শহিদুল ইসলামকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এলাকায় এ নিয়ে উত্তেজনা বিরাজ করছে। মুসল্লীরাও তাকে মসজিদে অবাঞ্ছিত ঘোষনা করেছেন।
এব্যাপারে মাহফুজুর রহমান বুলবুল এর সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তার সাথে দেখা করা সম্ভব হয়নি। তার ব্যাক্তিগত মুঠোফোন বন্ধ থাকার কারণে তার বক্তব্য নেওয়াও সম্ভব হয়নি। তার বাড়ীর আসেপাশের লোকজন জানায়, পরকীয়ার ঘটনা জানাজানির পর থেকে মাহফুজুর রহমান বুলবুল গা ঢাকা দিয়েছেন।

ধরমপুর শিশু একাডেমির (নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক) এক শিক্ষক জানান, মাহফুজ এর সাথে স্কুলের ঐ ম্যাডামকে প্রায় সময় মোটরসাইকেলে ঘুড়তে দেখতাম।
অভিযুক্ত শিক্ষিকার শশুর আবুল হোসেন বলেন, আমার ছেলে মাছাদুল কুয়েতে থাকে। ছেলে ছুটিতে বাড়ীতে আসলে মাহফুজের সাথে বউমার পরকীয়ার সম্পর্কের কথা সে হাতেনাতে প্রমান পায়। এর পর থেকে আমার ছেলে ও বউমার সংসারে অশান্তি লেগেই থাকে। মাহফুজের সাথে আমার ছেলের কথা হলে, মাহফুজ জানায় আমাকে ১ লক্ষ টাকা দিতে হবে, টাকা দিলেই তোর বউ তোর ভাত খাবে, না হলে খাবে না।

আমাকে (মাহফুজ) ১ লক্ষ টাকা দিলেই তোদের মিমাংসা আমি করে দেবো। এবিষয় নিয়ে শামসুলের মুড়ির মিলে বসাবসি হয়েছিল কিন্তু কোন সিদ্ধান্ত হয়নি, সেখানেও দুপক্ষের তর্কাতর্কি হয়। কোন সিন্ধান্ত হয়নি সেই মিটিং এ।
ধরমপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সেক্রেটারি একরামুল বলেন, মাহফুজ নামের ওই ইমামের এলাকায় এমন চরিত্রহীন কর্মকান্ড সাধারন মানুষকে ভাবিয়ে তুলেছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাই।

ধরমপুর ইউনিয়ন জাতীয় শ্রমিকলীগের সভাপতি ইয়াকূব আলী জানান, মসজিদের ইমামের এহেন কর্মকান্ডে আমরা ধরমপুর এলাকাবাসী খুবই লজ্জিত।
ভেড়ামারা উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আজিজ জানান, অভিযোগের সতত্যা পাওয়ায় ধরমপুর বাজার জামে মসজিদের ইমাম ও ধরমপুর শিশু একাডেমির প্রধান শিক্ষক মোঃ মাহফুজুর রহমান বুলবুলকে ইতিমধ্যে মসজিদ থেকে বহিস্কৃত করা হয়েছে। তাছাড়াও ধরমপুর শিশু একাডেমির প্রধান শিক্ষক পদ থেকে তাকে বহিস্কার করার বিষয়েও আলাপ-আলোচনা চলছে।

অভিযুক্ত ইমামের বিরুদ্ধে ধরমপুর এলাকাবাসী সবাই সোচ্চার। এই দুস্কর্মের উপযুক্ত বিচার চাই এলাকাবাসী।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর ....
x