ফকিরহাটে চাচিকে ধর্ষণের দায়ে ভাতিজা আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১৯ অক্টোবর, ২০২০
  • ২৮ বার নিউজটি পড়া হয়েছে

বাগেরহাটের ফকিরহাটে এবার চাচিকে একাধিকবার ধর্ষণের ঘটনা ঘটিয়েছে ভাতিজা।।জানা গেছে উপজেলার লখপুর ইউনিয়নের জাড়িয়া কাহারডাঙ্গা এলাকায় গৃহবধুকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করে জাড়িয়া কাহারডাঙ্গা এলাকার সেলিম বিশ্বাসের ছেলে আল আমিন বিশ্বাস (৩০)।

ভুক্তভোগী মামলার এজাহারে উল্লেখ করে বলেন,১২ বছর পূর্বে জাড়িয়া কাহারডাঙ্গা এলাকায় বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হবার পর, স্বামীর সংসার চলাকালীন সময়ে আল আমিন বিশ্বাস এর সাথে চার বছরের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।পরে বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হন।এব্যাপারে ভুক্তভোগী নারীর স্বামী জানতে পারলে তাকে ডিভোর্স দিয়ে দেয় গত ৩মাস আগে। পরে আমি আল আমিন বিশ্বাস-কে বিয়ে করার কথা বললে বিয়ে করতে অস্বীকার করে।

আল আমিন বিশ্বাস সুকৌশলে শারীরিক সম্পর্কের ভিডিও গোপনে ধারণ করে ব্লাকমেইল করে আসতো ওই নারীরকে । এবং পরবর্তীতে ভিডিও ভাইরাল করে দেবার কথা বলে শারীরিক সম্পর্কে বারবার লিপ্ত হয়েছে। রবিবার (১৮ই অক্টোবর) দুপুর অনুমান ২টার দিকে আল আমিন এর নিজ ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বার ০১৩১৫৩১৭৩২২ থেকে ফোন করে বিবাহ করিবে বলে জানায় এবং তাহার সহিত দেখা করার জন্য উপজেলার কাটাখালী বাস স্ট্যান্ডে আসতে বলে।

ঐদিন সন্ধ্যা অনুমান ৬ টার দিকে কাটাখালী পৌছালে আল আমিন বিশ্বাস তাকে নিয়ে হাটতে হাটতে আল আমিন বিশ্বাস এর নিজ বাড়ির পিছনের পুকুর পাড়ে নিয়ে যায়, সেখানে কিছুক্ষণ কথা বলার পর পুকুর পাড়ে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে।এ ব্যাপারে ফকিরহাট মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে যার নং-১৩,তারিখ ১৮/১০/২০২০ইং। মামলা দায়েরের পর ফকিরহাট মডেল থানা পুলিশের এস আই রফিকুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে গভীর রাতে আল আমিন বিশ্বাস-কে আটক করে। এ ব্যাপারে ফকিরহাট মডেল থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ আবু সাঈদ মোঃ খায়রুল আনাম বলেন, আমরা বাদীর অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা গ্রহণ করেছি। মেডিকেল পরিক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে।তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর ....
x